আজিজ সুপার মার্কেট, শাহবাগ, ঢাকা, বাংলাদেশ
০১৮৫৭৭৭৭৪৮৪

24/7 Customer Support

Call 0185 7777 484

Shipping Country wide

Free on order over ৳1999

Money Back Guarantee

15 days return Service

Shop category

BD books

Shop now
Shop category

Foreign Books

Shop now

I can say without doubt that your team are a true pleasure to work with. They are easy to communicate with which make process smooth. Highly recommended.

Vijay , ABC infotech

  • Vijay
  • Joth Soe
  • Willium Smith
  • Lora smith

Exclusive This Month

New arrivals

Featured Books

staff picks

Latest from our blog

We love to share our thoughts
  • Best selling book - March

    পৃথিবীর যুদ্ধবিরোধী অন্যতম শ্রেষ্ঠ উপন্যাস এরিখ মারিয়া রেমার্কের 'অল কোয়ায়েট অন…

    Read more
  • Top 10 E-books to read

    স্থাপত্যের ইতিহাসে লুই আই. কানের নাম নানা কারণে স্মরণীয় হয়ে আছে।…

    Read more
  • Most recommended Books

    শহর-ঢাকা আমাদের রাজধানী শহর। একটা সাধারণ মানের লোকালয় থেকে সুদীর্ঘ সময়…

    Read more

Book Title: ঝিনুক নীরবে সহো
Country: বাংলাদেশ
Language: বাংলা
Book Size: ৬.২৫x৯.৫
No. of pages: ২০০
ISBN: 978-984-95247-6-2
Available: Yes

“হা সুখী মানুষ, শুধু জানলে না

অসুখ কত ভালো

কতো চিরহরিৎ বৃক্ষের মতো শ্যামল

কত পরোপকার

কত সুন্দর”

—এমন উচ্চারণ কেবল মাত্র একজন কবিই করতে পারেন, যিনি খুব অল্প বয়সে অসুখের যন্ত্রণায় বুঁদ হয়েছিলেন। কবির বন্ধু ভাষ্যে “একটুখানি আয়ুষ্মতী ঘুম চেয়েছিলেন”—আবুল হাসানের অকাল মৃত্যুর পূর্বে বিনিদ্র রাত্রিগুলো এভাবেই দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়েছিল। তারপর সেই কালঘুম তাকে চিরতরে ঘুম পাড়িয়ে দিল, নিয়ে গেল লোকচক্ষুর আড়ালে—রয়ে গেল শুধু থোকা থোকা দুঃস্বপ্নের মতো অসামান্য টলটলে সব কবিতা এবং সতীর্থদের বেদনামাখানো স্মৃতি এবং একখানি সুরাইয়া খানম মিথ। এতটুকু অনেকেই জানেন। হয়তো আবুল হাসান নামের জন্মকথাও কারও কারও অজানা নয়। ঔৎসুক্যও কম নয় আরও গভীরে এবং আরও বিস্তারিত জানা। সেই ঔৎসুক্য একদিন উঁকি দিয়েছিল আরেক কবির মনে। তারপর আবুল হাসান নামের এক দুঃখদীর্ণ জীবনের আখ্যান রচিত হয় “ঝিনুক নীরবে সহো” শব্দবন্ধের আঙ্গিনায়।

মোশতাক আহমদ একজন কবি হয়ে খুঁজে ফিরেছেন তাঁর প্রিয় কবির জীবনগাথা। হয়তো এই একই জীবনালেখ্যের ভেতরে সঞ্চারিত হয়েছে লেখকের জীবনেরও অনেক গোপন দীর্ঘশ্বাস।

—জিললুর রহমান

Author মোশতাক আহমদ
৳640.00
1 In Stock
Price: Hardbound: ৬৪০.০০

Book Title: খোয়াবনামা
Country: বাংলাদেশ
Language: বাংলা
Book Size: ৫.৭৫" x ৮.৭৫"
ISBN: 9844100615
Available: Yes

মেলাদিন আগেকার  কথা। কাৎলাহার বিলের ধারে ঘন জঙ্গল সাফ করে সোভান ধুমা আবাদ শুরু করে বাঘের ঘাড়ে জোয়াল চাপিয়ে। ওইসব দিনের এক বিকালবেলা মজনু শাহের অগুনতি ফকিরের সঙ্গে মহাস্থান গড়ের দিকে যাবার সময় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সেপাই সর্দার টেলারের গুলিতে মারা পড়ে মুনসি বয়তুল্লাহ শাহ। কাৎলাহারর বিলের দুই ধারের মানুষ সবাই জানে, বিলের উত্তরে পাকুড়গাছে আসন নিয়ে রাতভর বিল শাসন করে মুনসি। দূরে কোথাও ভূমিকম্প হলে যমুনা বদলে যায়। বন্যায় ভেঙে পড়ে কাৎলাহারের তীর। মুনসির নিষ্কণ্টক অসিয়তে চাষীরা হয় কাৎলাহার বিলের মাঝি।

খোয়াবনামার শুরু। বিলের মালিকানা চলে যায জমিদারের হাতে। মুনসির শোলোকে শোলোকে মানুষের স্বপ্নের ব্যাখ্যা করে বেড়ায় চেরাগ আলি ফকির। তমিজের বাপ শোলোক শোনে আর ঘুমের মধ্যে বিলে গিয়ে কাদায় পা ডুবিয়ে দেখতে চায় পাকুড়গাছের মুনসিকে। ভবানী পাঠকের সঙ্গে পূর্বপুরুষের জের টেনে বৈকুণ্ঠনাথ গিরি প্রতীক্ষা করে ভবানীর শুভ আবির্ভাবের। তমিজ দেখে জমির স্বপ্ন। আর চেরাগ আলির নাতনি কুলসুম খোয়াবে কার কায়া যে দেখতে চায় তার দিশা পায় না। তেভাগার কবি কেরামত শেষ পর্যন্ত আটকে পড়ে শুধুই নিজের কোটরে; সে নাম চায় বৌ চায় ঘর চায়।

কোম্পানির ওয়ারিশ ব্রিটিশের ডাণ্ডা উঠে আসে দেশি সায়েবদের হাতে। দেশ আর দেশ থাকে না, হয়ে যায় দুটো রাষ্ট্র। দেশি সায়েবরা নতুন রাষ্ট্রের আইন বানায়, কেউ হয় টাউনবাসী, কেউ হয় কন্ট্রাকটর। আবার নিজদেশে পরবাসী হয় কোটি কোটি মানুষ। হিন্দু জমিদার নায়েব চলে যাওয়ার পরও আজাদ পাকিস্তানে জমি আর বিলের মা্নুষ নিজেদের মাটি আর পানির পত্তন ফিরে পায় না। পাকুড়গাছ নাই। মুনসির খোঁজ করতে করতে চোরাবালিতে ডুবে মরে তমিজের বাপ। ভবানী পাঠক আর আসে না। বৈকুণ্ঠ নিহত। ক্ষমতাবান ভদ্রলোকের বাড়িতে চাকর হয়ে বিল-ডাকাতির আসামী তমিজ পুলিসকে এড়ায়। কিন্তু তার কানে আসে কোথায় কোথায় চলছে তেভাগার লড়াই। নিরাপদ আশ্রয় ছেড়ে তমিজ বেরিয়ে পড়ে তেভাগার খোঁজে। ফুলজানের গর্ভে তমিজের ঔরসজাত মেয়ে সখিনাকে নিয়ে ফুলজান ঠাঁই নেয় কোথায়!

খোয়াবনাম সারা। কিন্তু মোষের দিঘিরপাড়ে শুকনা খটখটে মাঠের মাটিতে দাঁড়িয়ে কাৎলাহার বিলের উত্তরে সখিনা দেখতে পায় জ্বলন্ত হেঁসেলে বলকানো ভাত।

খোয়াবনামার জিম্মাদার তমিজের বাপের হাত থেকে খোয়াবনামা একদিন বেহাত হয়ে গিয়েছে। এখন সখিনার খোয়াব। খোয়াবনামা স্বপ্নের ব্যাখ্যাতা। কিন্তু স্বপ্নের ব্যাখ্যায় যা বিবেচ্য তা স্বপ্ন নয়, স্বপ্নদেখা মানুষ!

Author আখতারুজ্জামান ইলিয়াস
৳450.00
1 In Stock
Price: Hardbound: ৪৫০.০০

Language: বাংলা
Book Size: ৫.৭৫" x ৮.৭৫"
ISBN: 9844100615
Available: Yes

মেলাদিন আগেকার  কথা। কাৎলাহার বিলের ধারে ঘন জঙ্গল সাফ করে সোভান ধুমা আবাদ শুরু করে বাঘের ঘাড়ে জোয়াল চাপিয়ে। ওইসব দিনের এক বিকালবেলা মজনু শাহের অগুনতি ফকিরের সঙ্গে মহাস্থান গড়ের দিকে যাবার সময় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সেপাই সর্দার টেলারের গুলিতে মারা পড়ে মুনসি বয়তুল্লাহ শাহ। কাৎলাহারর বিলের দুই ধারের মানুষ সবাই জানে, বিলের উত্তরে পাকুড়গাছে আসন নিয়ে রাতভর বিল শাসন করে মুনসি। দূরে কোথাও ভূমিকম্প হলে যমুনা বদলে যায়। বন্যায় ভেঙে পড়ে কাৎলাহারের তীর। মুনসির নিষ্কণ্টক অসিয়তে চাষীরা হয় কাৎলাহার বিলের মাঝি।

খোয়াবনামার শুরু। বিলের মালিকানা চলে যায জমিদারের হাতে। মুনসির শোলোকে শোলোকে মানুষের স্বপ্নের ব্যাখ্যা করে বেড়ায় চেরাগ আলি ফকির। তমিজের বাপ শোলোক শোনে আর ঘুমের মধ্যে বিলে গিয়ে কাদায় পা ডুবিয়ে দেখতে চায় পাকুড়গাছের মুনসিকে। ভবানী পাঠকের সঙ্গে পূর্বপুরুষের জের টেনে বৈকুণ্ঠনাথ গিরি প্রতীক্ষা করে ভবানীর শুভ আবির্ভাবের। তমিজ দেখে জমির স্বপ্ন। আর চেরাগ আলির নাতনি কুলসুম খোয়াবে কার কায়া যে দেখতে চায় তার দিশা পায় না। তেভাগার কবি কেরামত শেষ পর্যন্ত আটকে পড়ে শুধুই নিজের কোটরে; সে নাম চায় বৌ চায় ঘর চায়।

কোম্পানির ওয়ারিশ ব্রিটিশের ডাণ্ডা উঠে আসে দেশি সায়েবদের হাতে। দেশ আর দেশ থাকে না, হয়ে যায় দুটো রাষ্ট্র। দেশি সায়েবরা নতুন রাষ্ট্রের আইন বানায়, কেউ হয় টাউনবাসী, কেউ হয় কন্ট্রাকটর। আবার নিজদেশে পরবাসী হয় কোটি কোটি মানুষ। হিন্দু জমিদার নায়েব চলে যাওয়ার পরও আজাদ পাকিস্তানে জমি আর বিলের মা্নুষ নিজেদের মাটি আর পানির পত্তন ফিরে পায় না। পাকুড়গাছ নাই। মুনসির খোঁজ করতে করতে চোরাবালিতে ডুবে মরে তমিজের বাপ। ভবানী পাঠক আর আসে না। বৈকুণ্ঠ নিহত। ক্ষমতাবান ভদ্রলোকের বাড়িতে চাকর হয়ে বিল-ডাকাতির আসামী তমিজ পুলিসকে এড়ায়। কিন্তু তার কানে আসে কোথায় কোথায় চলছে তেভাগার লড়াই। নিরাপদ আশ্রয় ছেড়ে তমিজ বেরিয়ে পড়ে তেভাগার খোঁজে। ফুলজানের গর্ভে তমিজের ঔরসজাত মেয়ে সখিনাকে নিয়ে ফুলজান ঠাঁই নেয় কোথায়!

খোয়াবনাম সারা। কিন্তু মোষের দিঘিরপাড়ে শুকনা খটখটে মাঠের মাটিতে দাঁড়িয়ে কাৎলাহার বিলের উত্তরে সখিনা দেখতে পায় জ্বলন্ত হেঁসেলে বলকানো ভাত।

খোয়াবনামার জিম্মাদার তমিজের বাপের হাত থেকে খোয়াবনামা একদিন বেহাত হয়ে গিয়েছে। এখন সখিনার খোয়াব। খোয়াবনামা স্বপ্নের ব্যাখ্যাতা। কিন্তু স্বপ্নের ব্যাখ্যায় যা বিবেচ্য তা স্বপ্ন নয়, স্বপ্নদেখা মানুষ!

Author আখতারুজ্জামান ইলিয়াস
৳0.00
৳40.00
Price: Hardbound: ৪০০.০০

Book Title: আন্ডারগ্রাউন্ড
Country: বাংলাদেশ
Language: বাংলা
Book Size: ৫.৭৫x৮.৭৫
No. of pages: ২৪০
ISBN: 978 984 510 074 8
Available: Yes

এই কাহিনি মাটির ওপরের পৃথিবীটাই—ওভারগ্রাউন্ডেড। যদিও পৃথিবীকে বুঝতে চাওয়া- মানুষেরা, দুই আঙুলের ফাঁকে ইংরেজি ‘ভি’ অক্ষর দেখিয়ে কুকুরের শোয়া-বসার ভঙ্গিতে আয়েশ করে পড়ে থাকা অভিমানীরা ভাব যে, ওভারগ্রাউন্ডে কোনো সভ্য নেই, কারণ পৃথিবী বুঝি চালানো হচ্ছে আন্ডারগ্রাউন্ড থেকেই। ওদিকে আন্ডারগ্রাউন্ডের বাসিনা এক ভিনদেশি আমি জেনারেল জানান, সোভিয়েত আমলে রাষ্ট্রপ্রধান জোসেফ স্তালিনের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে বিশ শতকের শ্রেষ্ঠতম রাশিয়ান কবি ওসিপ মান্দেলশ্‌তামাকে খুন করে তাঁর বাক-স্বাধীনতা কেড়ে নেওয়ার বিষয়টা বোঝা গেলেই জানা যাবে এ পৃথিবীর মূল সত্য। সত্য এমন যে—পৃথিবীর মূল্য সত্য। সত্য এমন যে—পৃথিবী প্রহ্লাদের জায়গা—রাক্ষস ও দানবের; কোনোভাবেই আহ্লাদের নয়। সত্য এমন যে, পৃথিবী অসম্ভব বড় এক বোরিং মেশিনের মাটিতে সামান্য কোনো ফঢাটা পেলেই ভেতরে ঢুকে যাবার স্থান। সেই ঢোকার নাম  ‘সভ্যতা’, আর ঢোকার প্রোডাক্টটার প্যাকেজ করা নাম ‘সিস্টেম’। আর ভেতরে ঢুকে ছিদ্রস্থিত হওয়ার, গর্তে বসানোর, বসে যাওয়ার নাম—‘সময়’।

Author মাসরুর আরেফিন
৳0.00
Price: Hardbound: ৪০০.০০