Editors

পিতা : ডা. এ. টি.  এম. মোয়াজ্জেম; মাতা : সৈয়দা খাতুন; স্ত্রী : সিদ্দিকা জামান। জন্মস্থান ও জন্মতারিখ : কলকাতা ১৮ই ফেব্রুয়ারি ১৯৩৭। শিক্ষা : প্রবেশিকা : প্রিয়নাথ হাই স্কুল, ঢাকা (১৯৫১); আই এ : জগন্নাথ কলেজ, ঢাকা (১৯৫৩); স্নাতক সম্মান (বাংলা) : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৫৬); স্নাতকোত্তর (বাংলা) : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৫৭); পিএইচ.ডি. : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৬২); অভিসন্দর্ভ : ইংরেজ আমলের বাংলা সাহিত্যে বাঙালী মুসলমানের চিন্তাধারা (১৭৫৭-১৯১৮); পোস্ট-ডক্টরাল ফেলো, শিকাগো...


আনু মাহমুদ তরুণ অর্থনীতিবিদ, প্রবন্ধকার, কলাম লেখক ও গ্রন্থকার হিসেবে ইতেমধ্যে বেশ পরিচিতি অর্জন করে সুধী পাঠক সমাজে একটি স্থান আয়ত্ত করতে সক্ষম হয়েছেন। যদিও তিনি তাঁর কর্মপরিসরে সরকারি কর্মকর্তা ও এ্যাডমিনেস্টেটিভ সার্ভিসের সদস্য হিসেবে মো মাহমুদুর রহমান নামেই সমধিক পরিচিত।

আনু মাহমুদ বেশ সময় ধরে লেখা-লেখির সাথে জড়িত রয়েছেন এবং অনেক চড়াই উৎরাই করে দীর্ঘপথ পরিক্রমার মাধ্যমে পরিস্ফুটিত হয়েছেন গ্রন্থকারের বর্তমান অবস্থানে এবং সংগ্রহের ঝুলিতে অর্জন...


২২শে সেপ্টম্বর, ১৯৫৬-তে জন্ম। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ থেকে ছাত্রত্ব শেষ করে ঐ বিভাগেই শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। বর্তমানে বিভাগীয় চেয়ারম্যান হিসেবে কর্মরত। সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী বিপ্লবী রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক কর্মতৎপরতার সাথে দীর্ঘদিন ধরে সক্রিয়ভাবে যুক্ত। বর্তমানে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালন করছেন, সম্পাদনা করছেন ইন্টারনেটভিত্তিক পত্রিকা ‘মেঘবার্তা। রাজনীতি, অর্থনীতি, পরিবেশ ও নারী প্রশ্নে এ পর্যন্ত...


ড. আনোয়ারুল করিম ১৯৩৮ সালে ২৪শে অক্টো্বর যশোর জেলার মনিরামপুর থানার লাউড়ি গ্রামে মাতুলায়ে জন্মগ্রহণ করেন। যশোর জেলা স্কুল থেকে ১৯৫৫ সাল ম্যাট্রিক। কলেজের শিক্ষা কৃষ্টিয়া এবং উচ্চশিক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ১৯৬২ সালে ইংরেজিতে এম.এ. এবং ১৯৭৭ সালে বাংলায় তিনি প্রথম বাউল বিষয়ে পিএইচ.ডি. করেন। এরপর কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে অধ্যাপনায় যোগ দেন ১৯৬২ সালে। ১৯৮২ সালে ভারতে ১০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ফোকলোর ও বাউলড বিষয়ে বক্তৃতা প্রদান করেন।। ১৯৮৫ সালে হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রফেসর অ্যানমারী...


পাবনার ঈশ্বরদীতে জন্মগ্রহণ করেন। পূবালী ব্যাংক লিমিটেড থেকে সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার হিসেবে অবসর নিয়েছেন। প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ৪২। তিনি বাংলা একাডেমির সদস্য। যুক্ত আছেন সাহিত্য সংগঠন এবং সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডে। তিনি কমরেড আলাউদ্দিন স্মৃতি পুরস্কার প্রবর্তন করেছেন। আফরোজা অদিতি তটিনী (সাহিত্যপত্র) নামে একটি পত্রিকার প্রকাশক এবং সম্পাদক। তিনি বাংলাদেশ বেতার ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের তালিকাভুক্ত গীতিকার।