হাশেম খান Hashem Khan

পূর্ণ নাম—মু. আবুল হাশেম খান। জন্ম : ১৯৪১ চাঁদপুর। বাংলাদেশ চারুকলা ইনস্টিটিউটে যার দীর্ঘদিন অধ্যাপনার অভিজ্ঞতা; ১৯৬৩ থেকে বর্তমান পর্যন্ত। চারুকলা বিকাশের আন্দোলনে ও প্রগতিশীল সংস্কৃতিকচর্চার পরিবেশে সৃষ্টির আন্দোলনে তিনি সর্বদা সক্রিয় এবং সংগঠকের ভূমিকায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। রুচিস্নিগ্ধ ও সুশোভন পুস্তক প্রকাশনায় তাঁর বিশেষ অবদান রয়েছে। এ পর্যন্ত প্রায় দুই হাজার বইয়ের ছবি এঁকেছেন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশে সরকারের সংবিধান গ্রন্থের প্রধান শিল্পী। ১৯৬১ সাল থেকে নিয়মিত ছবি আঁকছেন। দেশে-বিদেশে অসংখ্য প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছেন। পেশাগত দায়িত্ব নিয়ে অনেক আন্তর্জাতিক চিত্র-প্রদর্শনী ও সেমিনারে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদের প্রাক্তন সভাপতি। শিশু-কিশোর আন্দোলন কচি-কাঁচার মেলা, ঢাকা নগর জাদুঘর, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর গড়ে তোলার সক্রিয় সদস্য। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী, বাংলাদেশ শিশু একাডেমী, বাংলা একাডেমী ও বহু বেসরকারি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে জড়িত।

ছোটদের ছবি আঁকার ৪টি বই এবং মাধ্যমিক স্কুলের চারুকলা বিষয়ের ৬টি পাঠ্যবই লিখেছেন। শিল্পচার্য জয়নুল আবেদিনের বর্ণাঢ্য জীবন নিয়ে তাঁর একটি বই প্রকাশিত হয়েছে, নাম—‘মানুষ জয়নুল আবেদিন, শিল্পী জয়নুল আবেদিন’। উল্লেখযোগ্য বই ‘একাত্তর গুলিবিদ্ধ’, ‘দুইজন শিক্ষক আমি ছাত্র’।

‘চারুকলা’ মানব কল্যাণে বিশেষ অবদান রাখুক—এই অভিলাষ ও অভিপ্রায় নিয়ে নিরলস ছবি এঁকে চলেছেন।