গণিতশাস্ত্রের ইতিহাস

গণিতশাস্ত্রের ইতিহাস
First edition: ফেব্রুয়ারি, ১৯৭০
First reprint: জুলাই, ২০০৪
Book size: ৫.৭৫" x ৮.৭৫"
No. of Pages: ১৪৪
Price: Hardbound: ২৪৮.০০
ISBN: 98481415111
Available: Yes

‘বিজ্ঞান আজ বহু শাখায় বিভক্ত।  এসবের মূলে রয়েছে গণিতশাস্ত্র। গণিত বলতে প্রাচীন মিসরে প্রধানতঃ জ্যামিতি আর প্রাচীন বাবিলনে ও ভারতবর্ষে প্রধানতঃ পাটীগণিতই বোঝাত। এক-দুই-তিন প্রভৃতি পূর্ণ সংখ্যার কল্পনা উদ্ভূত হল, তারপর কেমন করে এসবের সংমিশ্রণে ত্রিকোণমিতি, গোলক ত্রিকোণমিতি এবং ঋণ সংখ্যা, ভগ্নাংশ, শূন্য, অনন্ত দশমিক, লগারিদম, অপ্রেমেয় সংখ্যা (Incommensurate), আনুপাতিক বা অমূলজ (Irrational) সংখ্যা, কাল্পনিক (Imaginary) বা সদিক (Vector) সংখ্যার বিচিত্র বিকাশ হল, সেই ইতিহাস অতি চমৎকার এবং মানুষের চিন্তনশক্তির গৌরবময় ফল। গণিতের ক্ষেত্রে বিগত একশো বছরের মধ্যে নানাদিকে এতই প্রসারিত হয়েছে যে বর্তমানে এমন একজন গণিতবিশারদও খুঁজে পাওয়া যা্বে না, যিনি এর সমুদয় শাখার সঙ্গে সম্যক পরিচয়ের দাবী করতে পারেন। কাজেই বর্তমান পুস্তকে কেবল সহজবোধ্য অংশটুকুর প্রতি আলোকপাত করবার চেষ্টা করা হবে।

‘এতে বর্ণিত হবে, অঙ্কশাস্ত্র কেমন করে কৃষিকাজ, ব্যবসায়-বাণিজ, শিল্পোন্নতি, যুদ্ধবিদ্যা, স্থাপত্য, দর্শনশাস্ত্র, পদার্থবিদ্যা, জ্যোতিষশাস্ত্র প্রভৃতি দ্বারা প্রভাবিত বা উদ্বুদ্ধ হয়েছে। যে সকল মহারথী গণিতশাস্ত্রে বিশিষ্ট অবদান রেখে গেছেন, তাঁরা কি পরিবেশে কাজ করেছেন, সমসাময়িক সমাজের সঙ্গে তাঁদের সম্পর্ক কেমন ছিল, এসব বৃত্তান্ত বেশ চিত্তাকর্ষক, কখনও কৌতুককর, আবার কখনও বা পীড়াদায়ক।

‘এই বিচিত্র মহোহর ঘটনাবর্ণনে আমি প্রধানতঃ আলফ্রেড হুপার কৃত ‘Makers of Mathematics’ এবং ডির্ক জেস্ট্রয়িক-কৃত ‘A Concise History of Mathematics’-এর সাহায্য নিয়েছি; কিন্তু এঁরা যে পাঠক সমাজকে সামনে রেখে পুস্তক রচনা করেছেন তার সঙ্গে বর্তমান পুস্তকের পাঠক সমাজের হয়ত বেশ খানিকটা পার্থক্য রয়েছে। তাই কিছু গ্রহণ, কিছু বর্জন, আর কিছু স্পষ্টায়ন বা রূপান্তর করতে হয়েছে। এতএব এ পুস্তক অনুবাদও নয়, অনুকরণও নয়—তবে অনুসরণ বটে। অবশ্য দু’জনের অনুসরণ করা সহজ নয়। বাস্তবিকপক্ষে উপরের দু’খানা বইয়ের একটা মানানসই মিশ্রণ কল্পনা করে তারই অনুসরণ করা হয়েছে। পরিবশেন প্রণালী সরস করবার চেষ্টা করেছি, এ চেষ্টা সফল হয়ছে কি না সে বিচার পাঠকেরাই করবেন।’